‘আমি আর কয় ঘন্টা আছি বলতে পারছি না’— চিকিৎসা না পেয়ে ছাত্রলীগ নেতার আর্তনাদ

2203

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন গত বুধবার নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকায় শ্রমিকলীগ নেতা মজিবুর রহমান প্রধান। তার পরিবারের অন্যান্যরাও আক্রান্ত, এমন সন্দেহ পোষণ করেছেন তারই ছেলে জালকুড়ি ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা ইমরান হোসাইন। তিনি দাবি করেছেন, তিনিসহ তার পরিবারের ৭জন অসুস্থ। পিতার মৃত্যুর পর সবাই রয়েছেন হোম কোয়ারেন্টিনে।

ইমরানের দাবি চিকিৎসা পাচ্ছেন না তারা। অসুস্থতা নিয়েই অবরূদ্ধ অবস্থায় রয়েছেন। হটলাইনে যোগাযোগ করেও কোনো রকম সাহায্য পাচ্ছেন না বলে তিনি অভিযোগ তুলেছেন। ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে সাহায্যের আকুতি জানিয়েছেন এই ছাত্রলীগ নেতা। একই সঙ্গে তিনি তার ফেসবুকে লিখেছেন, যদি কেউ সাহায্য না-ই করতে পারেন, তাহলে যেন মৃত্যুর পর তাদেরকে নিজেদের কবরস্থানে দাফনের ব্যবস্থা করা হয়।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘অপারে ভালো থেকো বাবা। আল্লাহ আপনাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসীব করুক। আমাদেরও হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে। আমার যত ভাই বোন আত্মীয়স্বজন এমন কি যারা আমার পরিবার এবং আমার সাথে গত ৮/১০ দিনের মধ্যে দেখা সাক্ষাত করেছে অথবা আমার ফ্যামিলিতে আসা যাওয়া করেছে এমনকি আপনাদের সাথে অন্য কারো দেখা হয়েছে তারা সবাই হোম কোয়ারান্টিন এ চলে যান। কারণ আমার বাবা ‘ক্যাভিড ১৯’ পজেটিভ ছিল।’

ইমরান আরও লেখেন, আমি আর কয় ঘন্টা আছি তাও বলতে পারছি না। আমার ফ্যামিলিও ভালো নাই। ‘আল্লাহ এক মাত্র ভরসা’। সবাই সাবধানে থাকেন নিজে ভালো থাকেন অন্যকে ভালো রাখেন। দেশকে ভালো রাখেন।”

তিনি লেখেন, ‘আমার রাজনৈতিক আদর্শ ‘অয়ন ওসমান’ ভাইকে বলছি আমার ফ্যামিলিকে একটু দেখেন। চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। সম্মানিত ডিসি সাহেব, সিটি করপোরেশনের পক্ষে কিছু করার থাকলে করেন। আমার বাবা এবং আমদের দাফন যাতে আমাদের কবরস্থানেই হয়। আপনারা এ ব্যবস্থা করবেন। সবাই ভালো থাকেন দেশটাকে ভালো রাখেন। আর সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থী।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here