মুক্তিপণ আদায়কালে হাতেনাতে ২ ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

673

দুই ছাত্রকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়কালে হাতেনাতে রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি প্রার্থী ইফতেখার আলী ভুঁইয়াসহ (২৩) দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত পৌনে ১১টার দিকে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের বোয়ালিয়া থানা পুলিশ ছদ্মবেশে অপহৃত ছাত্রদের উদ্ধার করলেও বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের নজরে আসে। এ সময় ছাত্রলীগ নেতাসহ দুজনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নগরীর হেতেম খাঁ এলাকার ইমরান আলী ভুঁইয়ার ছেলে ছাত্রলীগ নেতা ইফতেখার আলী ভুঁইয়া (২৩) এবং সিরাজগঞ্জের বয়রাবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা আমিরুল ইসলামের ছেলে ছাত্রলীগকর্মী আবির হাসান (২০)। এদের মধ্যে ইফতেখার রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী ছিলেন বলে জানা গেছে।

উদ্ধারকৃত ছাত্ররা হলেন নওগাঁর পোরশা উপজেলার নোনাগ্রামের একরামুল শাহের ছেলে তামিম শাহ (১৯) এবং পার্শ্ববর্তী সাপাহার উপজেলার পিছইল ডাঙা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে রিফাত হোসেন (২০)।

বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ জন্দ্র বর্মণ বলেন, মঙ্গলবার বিকালে কলেজিয়েট স্কুলের সামনে থেকে তামিম ও রিফাতকে জোরপূর্বক অজ্ঞাতনামা স্থানে নিয়ে যায় একদল যুবক।

এর পর তাদের মারধর করে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। মুক্তিপণের টাকার জন্য তারা তামিমকে দিয়ে তার বন্ধু জীবনকে ফোন করায়। জীবন বিষয়টা তাৎক্ষণিক তামিমের বাবাকে ও বোয়ালিয়া থানা পুলিশকে জানান।

এদিকে ফোনে অপহরণকারীদের টাকা দিতে চাইলে তারা জীবনকে প্রথমে নগরীর নিউমার্কেটের সামনে ডাকে। এর পর রাজশাহী কলেজ ও পরে কলেজের হিন্দু হোস্টেলের সামনে ডেকে নেয়। সেখান থেকে রাত পৌনে ১১টার দিকে পুলিশ ছদ্মবেশে তাদের আটক করে।

তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মনি (২৩) ও সাদসহ (২০) আরও কয়েকজন অপহরণকারী পালিয়ে যায়। সেখান থেকেই অপহৃত তামিম ও রিফাতকে উদ্ধার করা হয়।

অপহৃতের পরিবারের লোকজনের রাজশাহীতে আসতে বিলম্ব হওয়ায় দুজনকে সাক্ষী করে অপহৃতদের বন্ধু জোনাইদুর রহমান জীবন থানায় অভিযোগ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here