মোদির বিরোধিতা মানে মুজিববর্ষের বিরোধিতা: কাদের

1475

ভারতের সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, দাসত্বের নয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আসার বিরোধীতা করা মানে মুজিববর্ষের বিরোধীতা করা।

বুধবার ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংগঠনের ঘোষণাপত্র ও গঠনতন্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। এ সময় তিনি জানান, কোনো সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভূমি দখলকারী, মাদক ব্যবসায়ী আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবেন না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, মুজিববর্ষ উদ্‌যাপন সামনে রেখে আমাদের দেশে আবার সাম্প্রদায়িক অপশক্তির অপতৎপরতা শুরু হয়েছে। আজ মির্জা ফখরুল ও তাদের দোসররা যে প্রপাগান্ডা করছেন, যে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন আসলে তাদের আমি বলব তারা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন বিরোধিতা করতে গিয়ে মুজিববর্ষের বিষোদ্‌গার করছে। অথচ তারা হয়তো ভালো করেই জানেন মোদি ভারতের প্রতিনিধি হিসেবে বাংলাদেশে আসছেন। মুক্তিযুদ্ধে ভারত ছিল বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সহযোগী, দুঃসময়ের বন্ধু। ভারত আমাদের উন্নয়নেরও সহযোগী। তাই ভারতের প্রতিনিধি ছাড়া মুজিববর্ষ উৎযাপনের সম্পূর্ণ হয় না।

দেশের আর্থসামাজিক, রাজনৈতিক বাস্তবতা ও বিশ্ব পরিস্থিতির সাথে সঙ্গতি রেখে ২১তম জাতীয় সম্মেলনের ঘোষণাপত্র ও গঠনতন্ত্র প্রকাশ করা হয়। তিন মাস আগে অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলেন অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে কাদের বলেন, আওয়ামী লীগে কোনো বিতর্কিত ব্যক্তির জায়গা হবে না। বিতর্কিত ব্যক্তিদের সদস্যপদ নবায়ন প্রসঙ্গে কাদের বলেন, তাদের বাদ দিয়েই সদস্যপদ নবায়ন করা হবে। তারা যেন কোনোভাবেই সদস্যপদ নবায়ন করতে না পারেন সে বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here